,

ThemesBazar.Com

নায়করাজ রাজ্জাক বেঁচে থাকলে খুব খুশি হতেন : গাজী মাহাবুব

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার জয়ী ‘প্রেমের তাজমহল’ ছবির নির্মাতা গাজী মাহবুবের সাধারণ সদস্যপদ এক বছরের জন্য স্থগিত করেছিলো চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতি। নির্বাচিত পরিচালক সমিতির কার্যনির্বাহী কমিটি থেকেও তাকে বহিষ্কার করা হয়েছিলো। গেল বছরের ২৪ জুলাই লিখিত চিঠির মাধ্যমে গাজী মাহবুবকে এই বিষয়ে জানিয়েছিলো পরিচালক সমিতি।

 

এক বছর পর সেই নিষেধাজ্ঞা কাটছে। পরিচালক সমিতি থেকে সদস্যপদে নিষেধাজ্ঞা বাতিল সংক্রান্ত লিখিত চিঠি ২৪ জুলাই সকালে হাতে পেয়েছেন নির্মাতা গাজী মাহবুব। ওই চিঠিতে চিত্রপরিচালক সমিতির সভাপতি মুশফিকুর রহমান গুলজারের স্বাক্ষর রয়েছে বলে জানান তিনি।

 

গাজী মাহবুব বলেন, ‘কী হয়েছিলো, কার দোষ ছিলো না ছিলো সেসব নিয়ে আর কথা বলতে চাই না। পরিচালক সমিতি আমার প্রিয় পরিবার। সেখানে সবাই আমার সজ্জন। আমি কমিটির নির্বাচিত একজন সদস্যও। অবশেষে সেখানে সসম্মানে অন্তর্ভূক্ত হতে পারছি এটাই আনন্দের। আবারও সবাইকে নিয়ে মিলেমিশে চলচ্চিত্রের উন্নয়নে কাজ করে যাবো।’

 

তিনি আরও জানান, ‘সমিতির সভাপতি ও মহাসচিব আমাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন। তবে নায়করাজ রাজ্জাক সাহেব বেঁচে থাকলে খুব খুশি হতেন। তাকে নিয়েই ঝামেলা শুরু হয়েছিলো। তাকে নিয়ে কথা বলতে গিয়ে আমার উপর নিষেধাজ্ঞা আসায় তিনি মনে অনেক কষ্ট পেয়েছিলেন। আমার নিষেধাজ্ঞার ঘটনার কিছুদিন পরই তিনি পরলোক গমন করেন। নায়করাজ ছিলেন আমার কাছে অভিভাবকের মতো। প্রতিটি বিষয়ে তার পরামর্শ নিতাম, তার বিধি নিষেধ শুনতাম।’

 

এ ব্যাপারে পরিচালক সমিতির সভাপতি মুশফিকুর রহমান গুলজার  বলেন, ‘গাজী মাহবুব একজন সফল নির্মাতা ও নেতা। তার সৃষ্টিশীল ভাবনা সবসময়ই চলচ্চিত্রকে সমৃদ্ধ করেছে আমাদের সমিতিকে উপকৃত করেছে। মানুষ ভুল করে, মানুষই তা শুধরে নেয়। সমিতি থেকে তার উপর সব রকম স্থগিতাদেশ তুলে নেয়া হয়েছে। আমরা তাকে সম্মানের সঙ্গেই আবারও সঙ্গী করে নিয়েছি।’

 

প্রসঙ্গত, গেল বছরের ২১ মে গাজী মাহবুব এফডিসিতে নায়করাজ রাজ্জাকের ভূমিকা নিয়ে সিনিয়র পরিচালকদের সঙ্গে খারাপ আচরণ করেন বলে অভিযোগ তুলে পরিচালক সমিতি। বলা হয়, সমিতির আচরণ বিধি লঙ্ঘন করে পুলিশি ঝামেলা বাঁধান এই পরিচালক। পরে পুলিশ এসে তাকে অপরাধী হিসেবে শনাক্ত করে। এটা পরিচালক সমিতির জন্য বিব্রতকর ছিলো। পুলিশের কাছে তার করা সকল অভিযোগ মিথ্যে প্রমাণিত হওয়ায় আমরা পরিচালক সমিতি থেকে তার সদস্যপদ এক বছরের জন্য স্থগিত করেছি এবং কার্য নির্বাহী কমিটি থেকে তাকে বাতিল করেছি।

 

প্রেমের তাজমহল ছাড়াও গাজী মাহবুব নির্মাণ করেছেন ‘আমার পৃথিবী তুমি’, ‘রাজা সূর্য খাঁ’, ‘শিরী ফরহাদ’ ইত্যাদি ছবিগুলো। এছাড়া ‘ভালোবাসা ২৪×৭’ নামের একটি ছবি নির্মাণের পরিকল্পনা রয়েছে তার।

ThemesBazar.Com

     আরও সংবাদ