,

ThemesBazar.Com

রংপুরে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৬, তদন্ত কমিটি গঠন

রংপুরের সিও বাজার এলাকায় দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ছয়জনে দাঁড়িয়েছে। এতে দুই বাসের অন্তত ৫০ যাত্রী আহত হয়েছেন। রোববার দুপুর ১২টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছে জেলা প্রশাসন।

নিহতরা হলেন- গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার তালুক বর্মন গ্রামের রুবেল হোসেনের স্ত্রী রোকসানা (২০), সৈয়দপুরের বোতলাগাড়ি গ্রামের আনোয়ার হোসেনের স্ত্রী অমিজন (৪৫), পঞ্চগড়ের শাহীন মিয়া (১২), ঠাকুরগাঁয়ের ভুল্লী এলাকার মৃত ইব্রাহিমের ছেলে আব্দুর রহমান (৭০), নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলার বাহাগিলী ইউনিয়নের নয়নখাল গ্রামের মৃত শহিদুল ইসলামের স্ত্রী নুরবানু (৪৫) এবং মিঠাপুকুর উপজেলার বালারহাট গ্রামের মামুন মিয়ার স্ত্রী সুমি আক্তার (২২)। এদের মধ্যে শাহীন ও সুমি চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বগুড়া থেকে ছেড়ে আসা পঞ্চগড়গামী বিআরটিসি বাসটি সিও বাজার এলাকায় পৌঁছালে বিপরীতমুখী দিনাজপুর থেকে ছেড়ে আসা রংপুরগামী অপর একটি বাসের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই চারজন ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুইজন মারা যান।

রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক শাহীনুর রহমান জানান, দুর্ঘটনায় আহত ২২ জন হাসপাতালে ভর্তি আছেন। এদের মধ্যে ১৬ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। আহত অন্যরা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি চলে গেছেন।

এদিকে দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন করেছে জেলা প্রশাসন। অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোন্নাফ কবীরকে প্রধান করে তিন সদস্যের এ তদন্ত কমিটিকে আগামী সাত দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।

কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন- অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সার্বিক) আবু মারুফ হোসেন ও স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক আবু রাফা মো. আরিফ।

রংপুরের জেলা প্রশাসক এনামুল হাবীব জানান, দুর্ঘটনায় নিহত প্রতি পরিবারকে ২০ হাজার করে টাকা এবং আহতদের চিকিৎসার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যয় বহন করা হবে।

ThemesBazar.Com

     আরও সংবাদ