,

ThemesBazar.Com

ষড়যন্ত্রের গন্ধে নৈশভোজেও যাওয়া যাবে না : ড. কামাল

নিছক দাওয়াতের অনুষ্ঠান ছিল। মার্কিন রাষ্ট্রদূতের বিদায় উপলক্ষে ওই অনুষ্ঠান। সেখানে অনেকেই ছিলেন। রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে পুলিশ পাহারাও ছিল। অথচ এমন একটি আয়োজনকে কেন্দ্র করে ষড়যন্ত্রের অভিযোগ তোলা হলো! হামলাও করা হলো! তাহলে কি ষড়যন্ত্রের গন্ধে নৈশভোজও অংশ নেয়া যাবে না?

 

এক প্রতিক্রিয়ায় বলছিলেন, গণফোরাম সভাপতি ও সংবিধান প্রণেতা ড. কামাল হোসেন।

 

শনিবার রাতে সুজন (সুশাসনের জন্য নাগরিক) সাধারণ সম্পাদক বদিউল আলম মজুমদারের বাসায় যুক্তরাষ্ট্রের বিদায়ী রাষ্ট্রদূত মার্শিয়া বার্নিকাটের সঙ্গে এক নৈশভোজে অংশ নেন ড. কামাল। হাফিজ উদ্দিন আহম্মেদ, হামিদা হোসেনসহ আরও বেশ কয়েকজন উপস্থিত ছিলেন।

 

ড. কামাল বলেন, পুলিশি পাহারায় ছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত। তাহলে গোপন ষড়যন্ত্র হয় কী করে! অথচ তার গাড়ির ওপর হামলার চেষ্টা করা হলো। বদিউল আলম মজুমদারের বাড়িতে হামলা করা হলো। এটি কোনো সভ্য সমাজের সংস্কৃতি হতে পারে না।

 

নৈশভোজে দেশের রাজনীতি নিয়ে কোনো আলাপ হয়েছে কি না- জানতে চাইলে ড. কামাল বলেন, রাজনীতি বা দেশের পরিস্থিতি নিয়ে কোনো আলোচনা হয়নি। যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূতের বিদায়বেলা উপলক্ষে ওই দাওয়াতের আয়োজন। এখানে ষড়যন্ত্রের গন্ধ এলো কী করে?

 

কারা হামলা করেছেন- এমন প্রশ্নের জবাবে বলেন, দেশে তো গণতন্ত্র নেই। কোনো সমালোচনা সহ্য করতে পারছে না সরকার। সড়কে কোমলমতি শিক্ষার্থীদের ওপর যারা লাঠিসোটা নিয়ে হামলা করছে, তারাই এ হামলার সঙ্গে জড়িত বলে আমি মনে করি।

 

সুজন সম্পাদক বদিউল আলম মজুমদারের বাড়িতে হামলার ঘটনায় থানায় একটি জিডি (সাধারণ ডায়েরি) করা হয়েছে। রোববার সকালে মোহাম্মদপুর থানায় তিনি এ অভিযোগ করেন।

 

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) মোহাম্মদপুর জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার (এসি) বিপ্লব কুমার সাহা।

 

জিডিতে উল্লেখ করা হয়েছে, কে বা কারা তার বাসায় ভাঙচুর করেছে। এ ঘটনায় তিনি নিরাপত্তাহীনয়তা ভুগছেন। পাশাপাশি ঘটনায় জড়িতদের শাস্তির দাবি জানিয়েছেন তিনি।

ThemesBazar.Com

     আরও সংবাদ