,

ThemesBazar.Com

সুইজারল্যান্ডে কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে দুটি উড়োজাহাজ বিধ্বস্ত, নিহত ২৪

ইউরোপের আল্পস পর্বতমালার সুইজারল্যান্ডের অংশে কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে দুটি বিমান বিধ্বস্ত হয়েছে। গত শনিবার এই দুটি ঘটনায় ২৪ জন নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

 

শনিবার বিকেলে সুইজারল্যান্ডের পূর্বাঞ্চলের পার্বত্য এলাকায় দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের আমলের পুরোনো একটি উড়োজাহাজ জেইউ-৫২ বিধ্বস্ত হয়ে ২০ জন নিহত হন। সুইজারল্যান্ডের পুলিশ কর্তৃপক্ষ এ তথ্য নিশ্চিত করে। এর আগে শনিবার সকালে সেন্ট্রাল সুইজারল্যান্ডে পার্বত্য এলাকায় একটি ছোট্ট বিমান বিধ্বস্ত হয়ে একই পরিবারের চার সদস্য নিহত হন।

 

স্থানীয় এয়ারলাইন জেইউ উড়োজাহাজ সংস্থা নিজেদের ওয়েবসাইটে জানায়, তাদের একটি জেইউ-৫২ বিমান বিধ্বস্ত হয়েছে। ওই বিমানে তিনজন ক্রু ও ১৭ জন যাত্রী ছিলেন। তবে কী কারণে উড়োজাহাজটি বিধ্বস্ত হয়েছে, তা এখনো জানা যায়নি। বিবিসি অনলাইনের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

 

যাত্রীরা সবাই দক্ষিণাঞ্চলের সীমান্ত এলাকার কাছাকাছি লোকার্ন থেকে দুদিনের সফর শেষে জুরিখে ফিরছিলেন। এ ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী থাকলেও কীভাবে ঘটনাটি ঘটেছে, তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। উড়োজাহাজটিতে কোনো ব্ল্যাক বক্স ছিল না। এ ছাড়া রাডার মনিটরিংয়েও ঘাটতি ছিল।

 

সুইস পরিবহন নিরাপত্তা তদন্ত বোর্ডের সদস্য ড্যানিয়েল নেচ বলেন, দুর্ঘটনাস্থলের পরিস্থিতির ওপর ভিত্তি করে মনে হচ্ছে, বিমানটির গতি অনেক বেশি ছিল। প্রায় উল্লম্বভাবে মাটিতে আছড়ে পড়ে। নিহত ২০ জনের মধ্য ১১ জন পুরুষ ও ৯ জন নারী ছিলেন। তাঁদের প্রত্যেকের বয়স ৪২ থেকে ৮৪ বছরের মধ্যে। নিহত ব্যক্তিদের মধ্যে ১৭ জন সুইজারল্যান্ডের ও ৩ জন অস্ট্রিয়ার নাগরিক।

 

রয়টার্সের তথ্য অনুযায়ী জেইউ-এয়ার কোম্পানির তিনটি ভিন্টেজ উড়োজাহাজ রয়েছে৷ এগুলো জার্মানিতে তৈরি৷ জেইউ-৫২ বিমানগুলো বানানো হয়েছিল ১৯৩১ থেকে ১৯৫২ সালের মধ্যে।

 

শনিবার সকালে সেন্ট্রাল সুইজারল্যান্ডে পার্বত্য এলাকায় উড়োজাহাজ বিধ্বস্ত হয়ে দুই শিশুসহ একই পরিবারের চারজন নিহত হন। এ খবরের সত্যতা নিশ্চিত করে সুইজারল্যান্ড পুলিশ৷ তারা বিমানে চড়ে ফ্রান্সে যাচ্ছিলেন৷

ThemesBazar.Com

     আরও সংবাদ